ঢাকা শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ৯ মাঘ ১৪২৭

‘কোভিড এনকাফালাইটিসে’ চমেক চিকিৎসকের মৃত্যু

আমার দেশ ডেস্ক
২১ ডিসেম্বর ২০২০ ২০:১৪
আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২১ ০৬:৫৮
‘কোভিড এনকাফালাইটিসে’ চমেক চিকিৎসকের মৃত্যু সংগৃহিত

করোনাভাইরাসে মারা গেছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের (চমেক) মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রভাষক হাসান মুরাদ (৪৭)। সোমবার সকালে নগরীর পাঁচলাইশে বেসরকারি পার্কভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ নিয়ে চট্টগ্রামে ১৪ চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন।

হাসান মুরাদ চমেকের করোনা সংক্রমণ শনাক্তকরণ ল্যাবে দায়িত্ব পালন করছিলেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন চট্টগ্রাম শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. মোহাম্মদ ফয়সল ইকবাল চৌধুরী।

চমেকের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন মাহমুদ জানান, হাসান মুরাদ ‘কোভিড এনকাফালাইটিসে’ আক্রান্ত হন। করোনার সংক্রমণের পর অক্সিজেনের অভাবে তার মস্তিষ্ক আক্রান্ত হয়। গত এক মাস ধরে তিনি পার্কভিউ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

এর আগে চমেক হাসপাতালের আরো দুজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

বিএমএ নেতা ফয়সল ইকবাল বলেন, ‘হাসান মুরাদ চমেকের ৩৫ ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। চমেকে কোভিড ল্যাব প্রতিষ্ঠা হলে তিনি শুরু থেকেই এর সঙ্গে যুক্ত হন। করোনাকালে মানুষকে সেবা দিতে গিয়েই তিনি আক্রান্ত হলেন এবং শেষ পর্যন্ত মারা গেলেন। মুরাদসহ চট্টগ্রামে ১৪ চিকিৎসককে আমরা করোনায় হারিয়েছি।’

মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে আরো ৩২ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭ হাজার ৩১২ জনে দাঁড়িয়েছে।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। আর দেশে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা তিন লাখ অতিক্রম করে গত ২৬ আগস্ট এবং মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়িয়ে যায় ৪ নভেম্বর।

সূত্র: ইউএনবি।